রবিবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১০:৪৪








প্রচ্ছদ » এটা কোন ক্যাটাগরি না (Super Six)

আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে ‘জি বাংলা’র আয়োজন, ছুঁয়ে গেল বাংলাদেশ

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেছে দেশে বিদেশের নামকরা একজন কিংবদন্তী শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু গত ১৮ অক্টোবর। বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের জন্য অনেক বড় একটি ক্ষতি এটি। শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে মায়ের কবরের পাশে দাফনই করা হয়েছে।

এই আক্ষেপ অনেক পুরনো। পাশের দেশ ভারতের কোনো তারকার মৃত্যু হলে তার শোক ছুঁয়ে যায় বাংলাদেশে। কিন্তু ভারতে পরিচিত ও জনপ্রিয় হলেও এদেশের নন্দিত-গুণী মানুষের মৃত্যু নিয়ে তেমন আগ্রহ থাকে না দেশটিতে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

সেই আক্ষেপ বা ভারতের উদাসীনতা যেন ঘুচে গেল আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে। গেল ১৮ অক্টোবর রূপালী গিটার ছেড়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান ব্যান্ড লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চু। তার অকাল মৃত্যুর শোক বাংলাদেশ ছাড়িয়ে আছড়ে পড়েছিল ভারতেও। বিশেষ করে কলকাতায় বাচ্চুকে শ্রদ্ধা জানিয়েছিলেন কবীর সুমন, অনুপম রায়সহ আরও অনেক তারকারা।

ওপার বাংলার গণমাধ্যমেও ছিল আইয়ুব বাচ্চুর জন্য শোক। তবে সবকিছু ছাপিয়ে কলকাতার টিভি চ্যানেল জি বাংলা আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে বিশেষ আয়োজন করে তাক লাগিয়ে দিলো। রোববার দিবাগত রাতে চ্যানেলটির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘সা-রে-গা-মা-পা-’র পর্বে দেখা গেল এই আয়োজন। আবেগঘন সেই আয়োজনে আপ্লুত আইয়ুব বাচ্চুর ভক্তরা, সিক্ত হলেন অশ্রুতে।

অনুষ্ঠানে একজন প্রতিযোগী হিসেবে অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের ছেলে নোবেল। তিনি ব্যান্ডের গানে সবার নজর কেড়েছেন। বিশেষ করে আইয়ুব বাচ্চুর বেশকিছু গান দিয়ে পেয়েছেন জনপ্রিয়তা। তাকে ঘিরে আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে বিশেষ আয়োজনে অংশ নিয়েছিলেন অনুপম রায় ও সা-রে-গা-মা-পা-’র দুই বিচারক শ্রীকান্ত আচার্য এবং শান্তনু মৈত্র।

উপস্থাপক যিশু সেনগুপ্ত আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে যখন বলছিলেন মঞ্চে তখন বিদায়-বিষাদের সুর। তার বলা শেষেই করুণ সুরে বেহালায় ভেসে আসে বাচ্চুর জনপ্রিয় ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে’ গানটি। এরপর গানটির কয়েক লাইন শোনান অনুপম রায়।

এ সময় গিটার হাতে দেখা যায় সা-রে-গা-মা-পা-’র বিচারক শান্তনুকে আর ড্রামস বাজাচ্ছিলেন উপস্থাপক যিশু। হঠাৎ সুর বদলে গেল ‘রূপালী গিটার’ গানে। গানটি এককভাবে গাইলেন নোবেল। তার করুণ সুরে গাওয়া ‘রূপালী গিটার’ ছুঁয়ে গেল দুই বাংলার দর্শকের মন।

সবশেষে অনুপম রায় ও নোবেলের সঙ্গে অনুষ্ঠানের সকল প্রতিযোগী, বিচারক গলা ছেড়ে গাইলেন ‘সেই তুমি’ গানটি। গিটারের তালে তালে একযোগে প্রায় ত্রিশজন শিল্পীর কণ্ঠে বেজে ওঠা গানটি চোখ ভিজিয়ে দিলো দর্শকের, আইয়ুন বাচ্চুর ভক্তদের। এমনটাই জানাচ্ছেন জি বাংলার ফেসবুক পেজে পোস্টে করা ৫ মিনিটের ওই বিশেষ আয়োজনের ভিডিওটির মন্তব্যের ঘরে।

 

উল্লেখ্য,কিংবদন্তি সঙ্গীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মোহাম্মদ ইসহাক ও মা নূরজাহান বেগম।তিনি চট্টগ্রাম শহরের এক বনেদী হাজী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার ডাক নাম রবিন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর।

আরও পড়ুন>>> বিখ্যাত মনীষীদের ১০০ বাণী