বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। বিকাল ৩:০৮








প্রচ্ছদ » প্রধান সংবাদ

দ্বিতীয় দফা সংলাপ শেষে যা বললেন ওবায়দুল কাদের

কবে নাগাত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে তা নিয়ে চলছে  জল্পনা কল্পনা । ইতিমধ্যে দেশের রাজণীতিক দল গুলোর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে । নিজ নিজ দলের লক্ষ অনুযায়ী  নির্বাচনি  প্রচারণা চলিয়ে যাচ্ছে ।তবে এরই মধ্যে বেশ আলোচনায় এসেছে নতুন দল জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ইতি মধ্যে গত ১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ করেছে দলটি ।পুনরায় অাবার সংলাপে বসেছে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারা আজকে যে দাবিগুলো নিয়ে এসেছেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে, সে বিষয়ে তার ঐক্যমত চান। নিশ্চয়তা চান।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা সংবিধানের বাইরে যাব না। সংলাপে আমাদের মধ্যে মনখুলে আলোচনা হয়েছে।বুধবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের সংলাপ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, তারা চেয়েছেন সংসদ ভেঙে দিয়ে ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন।‌‘এছাড়া তারা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ও রাজবন্দিদের মুক্তি চেয়েছেন, এ বিষয়ে তাদের দাবি মেনে নিতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই,’ বললেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, সেনাবাহিনীর মেজিস্ট্রেসি পাওয়ার নিয়ে তারা যা বলেছেন, তা আমাদের দেশে চালু নেই। তবে সেনাবাহিনী টাস্কফোর্স হিসেবে থাকবে, স্টাইকিং ফোর্স হিসেবে নিয়োজিত থাকবে।

তারা বেগম জিয়ার মুক্তি ওইভাবে চাননি, জামিন চেয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা বলেছি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ২০০৭ সালে এ মামলা করেছে। এটি আগেই নিষ্পত্তি করা যেতো, কিন্তু তারা দেরি করেছেন। এখন আদালত তাকে দণ্ড দিয়েছেন।

‌‘তারা আদালতের কাছে জামিন চাইতে পারেন, আদালত যদি তাদের জামিনে মুক্তি দেয়, তাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।’তিনি বলেন, তাদের সাত দফার অধিকাংশ দাবি মেনে নিতে আমাদের নেত্রী সম্মত হয়েছেন। তবে তারা এমন কিছু নিয়ে এসেছেন, সেগুলো নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার একটা বাহানা।

উল্লেখ্য, গত ৪ নভেম্বর নির্বাচন কমিশন এক বৈঠক শেষে জানান, আগামী বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিনক্ষণ জানিয়ে তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন।তবে গত ৫ নবেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা সিইসিকে নির্বাচনের সময় পেছানোর অনুরোধ করেন ।তবে গতকাল ৬ নভেম্বর সিইসি নুরুল হুদা সাফ জানিয়ে দেন তাফসিল ঘোষণার পেছানোর কোন সুযোগ এবং একাদশ জাতীয় নির্বাচন ডিসেম্বের মাসেই হবে বলে জানান ।

আরও পড়ুন>>> বিখ্যাত মনীষীদের ১০০ বাণী