বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। দুপুর ১:৫৫








প্রচ্ছদ » ক্রাইম ওয়ার্ল্ড

নরসিংদীতে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করল এক পাষন্ড বাবা !অতঃপর…

ধর্ষণ একটি আতংকের নাম বর্মমান সমাজে। সারাদেশে ধর্ষনের ঘটনা ক্রমেই বেড়ে চলেছে।ধর্ষণকে অপরাধই মনে হচ্ছে না লম্পটদের কাছে । লম্পটদের লালসার শিকার হচ্ছে দেশের হাজারো নারীও শিশু ।ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না নিজের মেয়েও। এমনি এক ঘৃন্য ঘটনা ঘটেছে নরসিংদীর মাদবদী থানায় । জানা গেছে

নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করেছে এক বাবা। সেইসঙ্গে ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে জানালে মেয়েকে হত্যার হুমকি দেয় বাবা।নির্যাতিত মেয়ের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার মাধবদীর কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের চৌগড়িয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে ওই বাবাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারের পর পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েকে ধর্ষণের বিষয়টি অকপটে স্বীকার করে অভিযুক্ত রতন মিয়া (৪৫)। গ্রেফতারকৃত রতন মিয়া চৌগড়িয়া গ্রামের মৃত রেহান আলীর ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রতন মাদকাসক্ত। তার স্ত্রী মানসিক প্রতিবন্ধী। মাদক সেবনকে কেন্দ্র করে স্ত্রীর সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া করত রতন মিয়া।এসব বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে প্রায় বাপের বাড়ি চলে যেত স্ত্রী। এই সুযোগে ১৫ বছরের মেয়েকে ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রায় ধর্ষণ করত রতন। একইসঙ্গে এই বিষয়টি কাউকে জানালে মেয়েকে হত্যার হুমকি দেয়।

দিনের পর দিন বাবার অমানবিক নির্যাতন সইতে না পেরে খালার কাছে পুরো ঘটনা খুলে বলে মেয়েটি। পরে নির্যাতিত মেয়েকে নিয়ে থানায় গিয়ে বাবার বিরুদ্ধে মামলা করে খালা। মামলার পর বুধবার ভোরে অভিযান চালিয়ে রতনকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ভুক্তভোগী মেয়েটি জানায়, বাবার অমানবিক নির্যাতন সইতে না পেরে খালার কাছে পুরো ঘটনা খুলে বলি। বাবা বলেছিল, এই বিষয়টি কাউকে জানালে তোকে গলা টিপে খুন করব। তাই ভয়ে এতদিন এই কথা বলার সাহস পাইনি।

এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার ব্যাপারে মাদবদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান  জানান ,নির্যাতিত মেয়েটির খালা এ ঘটনায় মামলা করেছেন। মামলার পর অভিযান চালিয়ে পাষন্ড বাবাকে পুলিশ আটক করে।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েকে ধর্ষণের কথা  স্বীকার করেছে বাবা রতন। নিজের মেয়েকে এভাবে নির্যাতন করা বাবাকে কোন ছাড় দেয়া হবে না কঠোর শাস্তির ব্যাবস্থা করা হবে অাদালতে প্রেরন করে ।