রবিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং। ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ৪:২৪










প্রচ্ছদ » অর্থ ও বাণিজ্য

ড. ইউনূস ও গ্রামীণ ব্যাংকের গল্প কানাডার ৭ম শ্রেণীর পাঠ্য বইতে!

অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনূস (জন্ম: ২৮ জুন, ১৯৪০) বাংলাদেশী নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ব্যাংকার ও অর্থনীতিবিদ। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের একজন শিক্ষক। তিনি ক্ষুদ্রঋণ ধারণার প্রবর্তক।

অধ্যাপক ইউনূস গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা। মুহাম্মদ ইউনূস এবং তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক যৌথভাবে ২০০৬ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করেন। তিনি প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে এই পুরস্কার লাভ করেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংকের কাহিনী এখন কানাডার সপ্তম শ্রেণীর জাতীয় পাঠক্রমের অংশ। কানাডার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রদের একটি পাঠ্য বই হচ্ছে ‘‘কমপ্লিট কানাডিয়ান কারিক্যুলাম গ্রেড ৭”

যেখানে ছাত্ররা গণিত, ইংরেজি ভাষা, ইতিহাস,বিজ্ঞান ও ভূগোল বিষয়ে জ্ঞান লাভ করে থাকে। প্রফেসর ইউনূস ও গ্রামীণ ব্যাংকের কাহিনী ইংরেজি পাঠ্য বইতে সন্নিবেশিত হয়েছে।

ইউনূস সেন্টারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, পাঠ্যবইতে লিখিত কাহিনীতে তুলে ধরা হয়েছে কীভাবে প্রফেসর ইউনূস বাংলাদেশের একটি দরিদ্র গ্রামে যান এবং সেখানে এক মহিলার সাক্ষাৎ পান যে বাঁশের মোড়া তৈরি করতো,

কিন্তু বাঁশের উচ্চ দাম ও গ্রামের মহাজনদের উচ্চ সুদের কারণে আর্থিকভাবে হিমশিম খাচ্ছিল। আর তখনই প্রফেসর ইউনূস তাকে ও তার মতো আরো অনেককে নিজের পকেট থেকে ২৭ মার্কিন ডলার ঋণ দেন যাতে তারা দারিদ্রের দুষ্টচক্র থেকে বের হবার উদ্দেশ্যে নিজেরাই ব্যবসা শুরু করতে পারে।

এই কাহিনীর মূল উদ্দেশ্য ক্ষুদ্রঋণের ধারণা কীভাবে জন্মলাভ করল এবং এটা কীভাবে বহু মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে সে সম্পর্কে শিশুদেরকে শিক্ষা দেয়া।

গ্রামীণ ব্যাংক ও ক্ষুদ্রঋণ কীভাবে সমাজের দারিদ্র দুর করতে এবং একটি অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী জাতি গড়ে তুলতে পারে – এই কাহিনীতে সেটাই তুলে ধরা হয়েছে।

ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানের উচ্চ বিদ্যালয়গুলোর পাঠ্য বইতেও একই ধরনের কাহিনী ও প্রবন্ধ অন্তর্ভূক্ত হয়েছে যা থেকে নতুন প্রজন্ম ক্ষুদ্রঋণ ও সামাজিক ব্যবসা সম্পর্কে এবং একটি দেশের উন্নয়নে এগুলোর ভূমিকা সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করতে পারে।