সোমবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং। ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১২:৪২








প্রচ্ছদ » এক্সক্লুসিভ

একসঙ্গে পাঁচ সন্তান জন্ম দিলেন ১৯ বছরের এই তরুণী !

প্রথমবারের গর্ভাবস্থা কাটিয়ে মাত্র ১৯ বছর বয়সেই চার কন্যা সন্তান এবং একটি অপরিণত মাংসপিণ্ডের জন্ম দিয়েছেন ভারতের এক তরুণী। তার নাম রুবিনা বেগম। এ বিরল ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে।

এর আগে গর্ভাবস্থায় আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করতে গিয়ে ডাক্তার দেখেন, তার গর্ভে একসঙ্গে চারটি সন্তান রয়েছে। আগামী মার্চের শেষে বা এপ্রিলের গোড়ায় দিকে তার প্রসব হওয়ার কথা ছিলো।কিন্তু গেল বৃহস্পতিবার ভোর রাতেই তার প্রসব বেদনা ওঠে। তাকে সকাল সাড়ে ছ’টায় ভর্তি করানো হয় মেখলিগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে। শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে মা হন রুবিনা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, একসঙ্গে চারটি মেয়ে এবং একটি অপরিণত মাংসপিণ্ডের জন্ম দেন রুবিনা। আরো আশ্চর্যের কথা এই যে, কোনো সিজার লাগেনি, নর্মালভাবেই পাঁচ সন্তান জন্ম দিয়েছেন রুবিনা। সাধারণতঃ এসব ক্ষেত্রে প্রচুর রক্তপাতের আশঙ্কা থাকে। তবে রুবিনার তেমন রক্তপাত হয়নি। তিনি পুরোপুরি সুস্থ আছেন।

একসঙ্গে চার বা পাঁচ সন্তানের জন্ম দেওয়া বিরল ঘটনা। এ সম্পর্কে রুবিনার চিকিৎসক মহকুমা হাসপাতালের স্ত্রী-রোগ বিশেষজ্ঞ অলোক সাঁতরা জানান, এমন ঘটনা ৮-১০ বছরে একটি ঘটে। আর জিনগত কারণেই এমনটা হয়ে থাকে।

রুবিনার স্বামী মকসেদ মহম্মদ পেশায় একজন দিনমজুর। ডেলিভারির আগে তার ওজন ছিল মাত্র ৩৯ কেজি। এত কম ওজন আর এতগুলি বাচ্চা নিয়ে পূর্ণ গর্ভাবস্থা কাটানো কঠিন বলেই বিশেষজ্ঞদের মত। চিকিৎসক অলোক সাঁতরা আরো বলেন, ‘আর এক মাস পরে জন্মালে বাচ্চাদের শারীরিক অবস্থা আরও ভাল হতো।’

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, জন্মের সময়ে চারটি কন্যার ওজন ছিল ৩৮৫ গ্রাম, ৫৮৫ গ্রাম, ৬৮২ গ্রাম, ৯০০ গ্রাম। বাকি অসম্পূর্ণ মৃত সন্তানটির দু’টো পা ও একটি হাত তৈরি হয়েছিল।প্রসবের পর মেখলিগঞ্জ থেকে রুবিনা ও তার সন্তানদের জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। হাসপাতালে নেয়ার পথে তার এক সন্তান মারা গেছে বলে একটি অসমর্থিত সূত্রে জানা গেছে। তবে বাকি তিন সন্তান ও রুবিনা ভাল আছে।

আরও পড়ুন... বিখ্যাত প্রেমের কবিতা