সোমবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং। ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১২:১২








প্রচ্ছদ » ভালোবাসা ও সম্পর্ক

অবশেষে প্রেমের টানে ছুটে আসা মার্কিন তরুণী ফিরে গেলেন নিজ দেশে

মার্কিন তরুণী এলিজাবেথ রিজিনা এসলিক (২১) ভালোবাসার টানে ২০১৭ সালের ২ জানুয়ারি ঢাকায় আসেন। ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার রাখালগাছি গ্রামের নির্মল বিশ্বাসের পুত্র মিঠুন বিশ্বাসের বাড়িতে চলে আসেন। এখানে এসে মিঠুন বিশ্বাসকে বিয়ে করেন।

অবশেষে বাংলাদেশে আসা সেই মার্কিন তরুণী ওই দেশে ফিরে গেছেন। জানা গেছে, ভিসার মেয়াদ না থাকায় তাকে ফিরে যেতে হয়েছে। তবে তারা দু’জন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসার করছেন।

তরুণী রিজিনা এসলিক দাবি করেছেন, তার স্বামীর দেশে থাকার ইচ্ছা থাকলেও আইনি সমস্যায় থাকতে পারেননি, এবার স্বামীকেই তার নিজের কাছে নিয়ে যাবেন।

এলিজাবেথের স্বামী মিঠুন বিশ্বাস বলেন- ‘আমি সিংগাপুরে ছিলাম বেশ কয়েক বছর। মূলত এলিজাবেথের সঙ্গে সম্পর্কটা শুরুই হয় ওখান থেকে। ফেসবুকের মাধ্যমে। ২০১৫ সালে বন্ধুত্ব শুরু। আমরা দুই জনেই খ্রিষ্টান ধর্মের হওয়ায় আমাদের সম্পর্কটা আস্তে আস্তে প্রেমের সম্পর্কে রূপ নেয়।

বিয়ের পর প্রথম দিকে ঐ তরুণী মিঠুনদের বাড়িতে থাকা অবস্থায় প্রচুর ভিড় হতো। সবাই বিদেশি বধূকে দেখতে আসত।

মিঠুন বিশ্বাস (২৬) ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার রাখালগাছি গ্রামের নির্মল বিশ্বাসের পুত্র। তার আরো দুইটি ভাই আছে। তিনি বিএ পাশ করে একটি এনজিওতে কাজ করেন।

তিনি জানান, রিজিনা এদেশে আসার সময় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় অর্থ। মেয়েটির পরিবার কোনো অর্থ দেয়নি। এই অবস্থায় রিজিনা নিজেই ৫ মাস শহরের একটি শপিং মলে কাজ করে এ দেশে আসার টাকা জোগাড় করেছেন।

তারপর চলে এসেছেন বাংলাদেশে। এখানে আসার পর তাদের বিয়ে হয়েছে। তিনি রিজিনাকে অনেক স্থানে ঘুরিয়ে নিয়ে বেড়িয়েছেন। যা তার খুব ভালো লেগেছে, এগুলোতে সে খুব খুশি হতো।

আরও পড়ুন... বিখ্যাত প্রেমের কবিতা