বুধবার, ২৭শে মার্চ, ২০১৯ ইং। ১৩ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ২:২৩








প্রচ্ছদ » ক্যম্পাস

বিশ্ববিদ্যালয় অচল করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন ভিপি প্রার্থী অরণি

ডাকসু নির্বাচনের পুনঃনির্বাচনের দাবিতে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি পেশ করেছেন পাঁচটি প্যানেলের প্রার্থীরা। স্মারকলিপি দিতে গিয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করেন তারা। সেখানে স্বতন্ত্র জোটের ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান বলেছেন, ‘ভোট চোর বা সন্ত্রাসী, সবাইকে আমরা রুখে দেব।’

এ সময় সমাবেশে অরণি বলেন, ‘আজকের দিনেই রাজু গুলি খেয়েছিল। সে কারণেই সেখানে সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্য করা হয়েছে। আমরা এখানে দাঁড়িয়ে সকল সন্ত্রাসীকে রুখে দেব। সেটা গতকালকে যারা টিএসসিতে হামলা করতে এসেছিল, ভোটের দিন ভোট চুরি করতে এসেছিল বা প্রার্থীদের ওপর হামলা করেছিল। সব সন্ত্রাসীকে আমরা রুখে দেব।

তাছাড়া আগামী তিনদিনের মধ্যে নতুন নির্বাচনের ঘোষণা না এলে বিশ্ববিদ্যালয় অচল করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান।
এর আগে গতকাল মঙ্গলবার টিএসসিতে একটি ঘটনায় নতুন করে আলোচনায় আসেন নির্দল প্রার্থী অরণি। সেদিন বিকেলে টিএসসিতে নুরুল হক ও অন্যান্য প্যানেলের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া দেয় ছাত্রলীগ। এক পর্যায়ে টিএসসির ভেতরে তাদের আশ্রয় নিতে দেখা যায়।

এর কিছুক্ষণ পরই নাটকীয়ভাবে ভিপি হিসেবে নুরুলকে মেনে তাকে অভিনন্দন জানাতে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন টিএসসিতে যান। পরাজয় স্বীকার করে নিয়ে নুরুলকে সর্বাত্মক সহযোগিতারও আশ্বাস দেন শোভন। কোলাকুলি করে ছবি তোলেন। এসময় সেখানে উপস্থিত অন্যদের সঙ্গে ছবি তোলার প্রসঙ্গ এলে শোভনকে সন্ত্রাসী হিসেবে উল্লেখ করে ছবি তুলতে অস্বীকৃতি জানান অরণি।

এর পর থেকেই ফেসবুকে একটি দল তার চরিত্র হননের চেষ্টা চালাচ্ছে অভিযোগ করে অরণি আজ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘শুধু আমিই নই, আমার সঙ্গে থাকা অন্য মেয়েদেরকেও ফেসবুকে মেসেজে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন জনের ফেসবুক ওয়ালে ছবিতে ভয়ঙ্কর রকম গালাগালি করা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আজ তিন দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছি। আমাদের আন্দোলন চলবে।’

আরও পড়ুন... বিখ্যাত প্রেমের কবিতা

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...