শনিবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং। ৭ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। রাত ১:১৭








প্রচ্ছদ » বিভিন্ন সংবাদ

সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে ৮ কিলোমিটার রাস্তা বানিয়েছেন সবজি বিক্রেতা

ভারতের উড়িষ্যার এক প্রত্যন্ত জেলা কন্ধমাল। পাথুরে রুক্ষ জমি, অনুন্নত পরিবেশ সেই গ্রামের। পাকা রাস্তাতো দূরে থাক, একটা কাঁচা রাস্তা পর্যন্ত নেই। শিক্ষার আলো পৌছায়নি এতদিনেও। এ গ্রামের বাসীন্দারা দুবেলা পেটের ভাত জোটাতেই হিমসিম খায়। সেখানকার ছোট্ট একটি গ্রাম গুমসাহিতে বাস করেন জলন্ধর নায়েক। পেশায় সবজি বিক্রেতা। অক্ষর-জ্ঞানের ছিটেফোঁটাও পড়েনি তার জীবনে। কখনো পড়াশোনা করার সুযোগও পাননি। যে কারণে মনের ভেতর একটা সুপ্তবাসনা কাজ করে জলন্ধরের, সন্তানদের শিক্ষিত করে তুলবেন তিনি।

 

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

 

শুরু থেকেই তার ইচ্ছে ছিল ছেলেকে পড়াশোনা করাবেন। বড় মানুষ বানাবেন। ছেলে যতদূর পড়তে চায় ততদূর পড়াবেন। কিন্তু গ্রামে সে ব্যবস্থা নেই। পড়তে হলে জঙ্গলের ভেতর দিয়ে মাইলের পর মাইল হেটে গিয়ে দূরের স্কুলে ভর্তি হতে হবে। একটা বাচ্চা ছেলের জন্য এটা প্রায় অসম্ভব। তার উপর জঙ্গুলে পাহাড়ি এলাকা। অনেক ভেবে একটা উপায় বের করেন জলন্ধর। প্রায় অভাবনীয় এক পরিকল্পনা। গ্রামের পাথুরে পাহাড় কেটে, জঙ্গল সাফ করে রাস্তা তৈরির পরিকল্পনা করেন তিনি। যাতে করে সহজেই তার ছেলেরা স্কুলে যেতে পারে।

পরিকল্পনার পর পরই জলন্ধর শাবল-খুন্তি নিয়ে নেমে যান কাজে। শহর বরাবর সোজা রাস্তা বানাবেন তিনি এটাই ছিলো একমাত্র ধ্যানজ্ঞান। হ্যাঁ, জঙ্গল সাফ করে, পাহাড় কেটেই বানাতে হবে সেই রাস্তা। গ্রামের লোকজন কিংবা সরকারি লোকজনের কাছে ধর্ণা দিয়ে লাভ হয়নি। তাই নিজেই কাঁধে তুলে নিলেন রাস্তা বানানোর দায়িত্ব। সেই যে শুরু করলেন, গেল দুই বছর তিনি নিয়মিত ৮ ঘণ্টা ধরে পাথর কেটে রাস্তা তৈরির কাজ করে গেছেন তিনি। প্রতিদিন সকাল হলেই ঘর থেকে বের হতেন জলন্ধর। ফিরতেন প্রায় শেষ বিকেলে। রোদ, বৃষ্টি, শীত কোনো কিছুর পরোয়া না করে দুরন্ত গতিতে কাজ চালিয়ে গেছেন তিনি। প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাস, জেদ, একনিষ্ঠতা, একাগ্রতা আর নিজেকে প্রতিমুহূর্তে ছাপিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য থাকলে অসম্ভবকেও সম্ভব করা যায়। জলন্ধরও সেটাই করেছেন।

অবশেষে ফল পেলেন তিনি। একদিন পেছনে ফিরে দেখেন দিনভর মাথার ঘাম পায়ে ফেলে জঙ্গল সাফ করে, পাহাড় কেটে প্রায় ৮ কিলোমিটার রাস্তা বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। তার এই কৃতিত্বের কথা স্থানীয় একটি সংবাদপত্রে ছাপানো হলে টনক নড়ে প্রশাসনের। জলন্ধরকে সেখানকার সরকারি দপ্তরে ডেকে নেয়া হলো। সঙ্গে সঙ্গেই ঘোষণা করা হয় তার এই অনবদ্য অবদানের জন্য বিশেষ সম্মান পাবেন জলন্ধর। রাস্তাটি যাতে ভালো করে নির্মাণ করা হয় তার ব্যবস্থা করে স্থানীয় প্রশাসন। স্বার্থক হয় জলন্ধরের এতোদিনের পরিশ্রম।

তিন সন্তানের মায়ের যৌন অত্যাচারে শিকার ১৭ বছরের কিশোর!
এবার বিমানে যাত্রীদের খাবার খাওয়ায় চাকুরি হারালেন বিমানবালা!
নূর হোসেনের হত্যাকারীর বিচার করবেন এরশাদ!


সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় এই কণ্ঠশিল্পীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার!

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে দু’বছর বসবাসঃ এখন বলছে লিভ টুগেদার!

জেনে নিন কারা থাকছেন তৃতীয়-চতুর্থ ওয়ানডেতে

১৫ দিনের মধ্যে খালেদাকে কারাগারে যেতে হবে

নাফিসের রেকর্ড স্পর্শ করলেন বিজয়

দীপিকাকে এবার জীবন্ত কবর দেওয়ার হুমকি! কাটছে না আতঙ্ক

পুরো ৩০ দিনে মাত্র ৬ মিনিটের জন্য দেখা দিল সূর্য

যেভাবে ৬০০০ সাল থেকে ২০১৮-তে এসে পৌঁছেছেন এই ব্যক্তি!

নারী যাত্রীদের জন্য রাস্তায় নামলো গোলাপি অটো

এবার আরেকজন বিগ হিটার খুঁজছেন মাশরাফি

এখানে মাস্তানি করতে আসবেন না, আমার থেকে বড় মস্তান কেউ নেই’

কেন মেনস্ট্রুয়াল কাপ বেছে নিচ্ছেন ভারতের মেয়েরা?

আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে যে পদ পেলেন এস ডি রুবেল

ঘণ্টায় ৭০ মাইল বেগে ঝড়ে অবতরণ বিমানের, ভিডিও দেখলে বুকটা কেঁপে উঠবে

পুরোনো কথা মনে করতে পারছেন না আইভী 

প্রিয়জনদের হারালেন সালমান খান , কাঁদলেন সংবাদমাধ্যমের সামনেই

গুগল এবং ফেসবুক মানব সভ্যতার জন্য বিরাট হুমকি স্বরূপ!

জয়ের পর লাইভে এসে যা বললেন মুশফিক

অবশেষে মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা

বাসর রাতে স্বামীর বর্বর যৌন নির্যাতনে স্ত্রীর মৃত্যু, বিয়ে বাড়িতে শোকের ছায়া





error: Content is protected !!
Copy to clipboard