শনিবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং। ৭ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। রাত ১:২৫








প্রচ্ছদ » প্রবাস

কাতারের কারাগারে প্রায় ১৮৭ জন বাংলাদেশি প্রবাসী বন্দী আছে!

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অপরাধের ভিত্তিতে দণ্ডিত হয়ে বর্তমানে কাতারের জেলখানায় বন্দী রয়েছেন প্রায় ১৮৭ জন বাংলাদেশি কয়েদি। তাঁদের মধ্যে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বন্দী যেমন রয়েছেন, তেমনি ছয় মাস বা এক বছর মেয়াদে সাজাপ্রাপ্ত আসামিও আছেন। কাতারের বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের মধ্যে মদ-গাঁজা বিক্রি, বহন, সেবন—এ-সম্পর্কিত অপরাধে আটকের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। তালিকায় ৩ থেকে সর্বোচ্চ ১০ বছর পর্যন্ত মেয়াদে দণ্ডিত কয়েদি রয়েছেন ৯১ জন। এ ছাড়া ইয়াবা সম্পর্কিত মামলায় সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি আছেন আরও ১০ জন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, কাতারে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত দুজন বাংলাদেশি কয়েদি রয়েছেন। যৌন হয়রানির অপরাধে এক থেকে তিন বছর পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি রয়েছেন সাতজন। সমানসংখ্যক কয়েদি রয়েছেন চেক জালিয়াতির অপরাধে। তাঁদের সাজার মেয়াদ এক থেকে তিন বছর পর্যন্ত।

চুরি ও ছিনতাইয়ের অপরাধে এক বছর থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর পর্যন্ত সাজাপ্রাপ্ত বন্দীর সংখ্যা ১৮। ভিসা জালিয়াতির অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত রয়েছেন দুজন। তাঁদের শাস্তির মেয়াদ এক বছর থেকে সর্বোচ্চ তিন বছর। এ ছাড়া নেশাজাতীয় ওষুধ বহন বা সেবনের অপরাধে দণ্ডিত কয়েদি আছেন দুজন। এর বাইরে অন্যান্য অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির সংখ্যা ৪৮।

সাম্প্রতিক সময়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে মদ, গাঁজা ও ইয়াবা সম্পর্কিত অপরাধে জড়িয়ে পড়ার প্রবণতা বাড়ায় এটিকেঅশনি সংকেত হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। এতে কাতারে বাংলাদেশের শ্রমবাজার ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন অনেকে।

এ বিষয়ে দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর সিরাজুল ইসলাম বলেন, দেশে কিংবা বিদেশে কোথাও অপরাধে জড়িয়ে পড়া কাম্য নয়। বিশেষ করে বিদেশে জীবন-জীবিকার তাগিদে এসে আইনবহির্ভূত কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়া কেবল নিজের সর্বনাশ ডেকে আনা নয়, বরং এতে দেশের সম্মান ও মর্যাদা নষ্ট করার বিষয়টিও জড়িত। কাতারপ্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি সব সময় আইন মেনে সব ধরনের অপরাধ থেকে দূরে থাকতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে কমিউনিটির সামাজিক কাজে জড়িত এমন একজন প্রবীণ প্রবাসী বাংলাদেশি

বলেন, কাতারে এখন বাংলাদেশি সামাজিক সংগঠনের সংখ্যা আগের চেয়ে কয়েক গুণ বেড়েছে। সাধারণ প্রবাসী শ্রমিকদের মধ্যে অপরাধ সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতে এসব সংগঠন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

তবে এ ব্যাপারে দূতাবাস নিয়মিত সচেতনতামূলক কর্মসূচির আয়োজন করে এবং দূরবর্তী শ্রমিক ক্যাম্পগুলোতে প্রচারণা বা মতবিনিময় সভার মাধ্যমে সর্বস্তরের প্রবাসীদের মধ্যে কাতারের আইন-কানুন সম্পর্কে জানানোর উদ্যোগ নিতে পারে বলে মনে করেন অনেক প্রবাসী।

আমিরাতে নতুন ট্যাক্স আইন, শঙ্কায় বাংলাদেশিরা
সিঙ্গাপুরে স্বপ্ন পুড়ছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের!!
এই সাধারণ কাজগুলো আপনি দুবাইতে করতে সাহস পাবেন না, করলেই হতে পারে মৃত্যুদণ্ড


সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় এই কণ্ঠশিল্পীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার!

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে দু’বছর বসবাসঃ এখন বলছে লিভ টুগেদার!

জেনে নিন কারা থাকছেন তৃতীয়-চতুর্থ ওয়ানডেতে

১৫ দিনের মধ্যে খালেদাকে কারাগারে যেতে হবে

নাফিসের রেকর্ড স্পর্শ করলেন বিজয়

দীপিকাকে এবার জীবন্ত কবর দেওয়ার হুমকি! কাটছে না আতঙ্ক

পুরো ৩০ দিনে মাত্র ৬ মিনিটের জন্য দেখা দিল সূর্য

যেভাবে ৬০০০ সাল থেকে ২০১৮-তে এসে পৌঁছেছেন এই ব্যক্তি!

নারী যাত্রীদের জন্য রাস্তায় নামলো গোলাপি অটো

এবার আরেকজন বিগ হিটার খুঁজছেন মাশরাফি

এখানে মাস্তানি করতে আসবেন না, আমার থেকে বড় মস্তান কেউ নেই’

কেন মেনস্ট্রুয়াল কাপ বেছে নিচ্ছেন ভারতের মেয়েরা?

আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে যে পদ পেলেন এস ডি রুবেল

ঘণ্টায় ৭০ মাইল বেগে ঝড়ে অবতরণ বিমানের, ভিডিও দেখলে বুকটা কেঁপে উঠবে

পুরোনো কথা মনে করতে পারছেন না আইভী 

প্রিয়জনদের হারালেন সালমান খান , কাঁদলেন সংবাদমাধ্যমের সামনেই

গুগল এবং ফেসবুক মানব সভ্যতার জন্য বিরাট হুমকি স্বরূপ!

জয়ের পর লাইভে এসে যা বললেন মুশফিক

অবশেষে মা হচ্ছেন প্রীতি জিনতা

বাসর রাতে স্বামীর বর্বর যৌন নির্যাতনে স্ত্রীর মৃত্যু, বিয়ে বাড়িতে শোকের ছায়া





error: Content is protected !!
Copy to clipboard