বৃহস্পতিবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং। ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। রাত ৪:৫২








প্রচ্ছদ » এক্সক্লুসিভ

ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপন দিয়ে সন্তানের মা হলেন জেসিকা

দশ মাস আগে একটি সন্তানের মা হওয়ার জন্য অস্থির হয়ে উঠেছিলেন লন্ডনের বাসিন্দা ৩০ বছরের জেসিকা। তার এর আগে বেশ কয়েকটি সম্পর্ক ভেঙ্গে গেছে। আর তাই এবার তিনি সন্তানের বাবা খোঁজার জন্য নতুন একটি পন্থা বের করলেন।

তিনি ইন্টারনেটে পুরনো জিনিসপত্র কেনাবেচার একটি ওয়েবসাইটে সন্তানের সন্তানের পিতা খুঁজতে বিজ্ঞাপন দিলেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

বিজ্ঞাপনটি এমন, ‘নিরাপদ, অরক্ষিত সন্তান জন্মদান। আমার বয়স ৩০ এবং ভালোমন্দ নিয়ে ভাবছি না। আমি একটি সন্তান চাই।’

সম্ভাব্য পিতার উচ্চতা হওয়া উচিত ৫ ফিট ৯ ইঞ্চি। বয়স হবে চল্লিশের নীচে আর যৌন বাহিত রোগ আছে কিনা, তার পরীক্ষা দিতে হবে এবং তাকে নিয়মিত যৌনমিলন করতে হবে।

জেসিকা বলছেন, ”আমাদের দাদা-দাদীরা তাদের জীবনসঙ্গী বাছাই করার জন্য এত সময় লাগাতেন না। বরং একটি পরিবার তৈরি করাই তাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল।”

জেসিকা দেখতে পেয়েছেন, তার অনেক বন্ধু গভীর ভালোবাসা নিয়ে তাদের জীবন শুরু করেছিল, কিন্তু পরে ঝগড়াঝাঁটির মধ্য দিয়ে তারা আলাদা হয়ে গেছে।

”তাই আমি সিদ্ধান্ত নিলাম, আমি আমার ভালোবাসার চাহিদাকে ততদিন পর্যন্ত বাদ দেবো, যতদিন না একজন তারা একজন যত্নবান বাবা-মা খুঁজে পান।”

 

একদিন জেসিকা রসের একটি ইমেইল পান। তার বয়স ৩৩, লন্ডনে থাকেন। তিনি লিখেছেন,তার একটি সন্তানের আকাঙ্ক্ষাও রয়েছে।

মধ্য লন্ডন থেকে বাসে ওঠার সময় তিনি ক্রেগসলিস্ট নামের ওই ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপনটি পোস্ট করেন। যখন তিনি অক্সফোর্ড স্ট্রিটে এসে তার কাজের জায়গায় নামেন, ততক্ষণে তিনি বেশ কয়েকটি সাড়াও পেয়েছেন।

এর আগে ডেভিড নামের একজনের সঙ্গে একটা দীর্ঘ সম্পর্ক হয়েছিল জেসিকার। ডেভিডও সন্তান নিতে চাইলেও, তার সন্তান জন্ম দেয়ার পুরোপুরি ক্ষমতা ছিল না। চিকিৎসকরা দাতাদের শুক্রাণু নিয়ে গর্ভধারণের জন্য জেসিকাকে পরামর্শ দেন।

 

কিন্তু সেটা তার কাছে খুব ভালো পরামর্শ মনে হয়নি। ”যেখানে নীচের পাবে নেমেই আমি বিনা পয়সায় শুক্রাণু পেতে পারি, সেখানে কেন আমি ৭০০ পাউন্ড খরচ করতে যাবো।” এমনটাই ভেবেছিলেন জেসিকা।

যারা জেসিকার এই বিজ্ঞাপনে সাড়া দিয়েছিল, তাদের মধ্যে কয়েকজন সমকামী দম্পতিও রয়েছে। কেউ কেউ আবার তার যৌনাঙ্গের ছবি তুলে পাঠিয়েছিল, কেউ কেউ দাবি করেছিল যে, তারা এরকম আরো কয়েকজন নারীকে মা হতে সাহায্য করেছে।

 

একদিন জেসিকা রসের একটি ইমেইল পান। তার বয়স ৩৩, লন্ডনে থাকেন। তিনি লিখেছেন, তার কয়েকটি বিপর্যয়কর সম্পর্ক হয়েছিল। কিন্তু তিনি চাচা হতে যেমন ভালোবাসেন, তার একটি সন্তানের আকাঙ্ক্ষাও রয়েছে।

একদিন বিকালে তার সঙ্গে পানাহার করতে যান জেসিকা।

প্রথম দেখায় মনে হয়, তার চেহারা তার ছবির চেয়েও সুন্দর। তারা বুঝতে পারেন, তাদের ধর্মবিশ্বাসে ভেদ রয়েছে, কিন্তু অন্য আরো অনেক লন্ডনের বাসিন্দার মতো এটি তারা বাদ দেন।

 

প্রথম দেখার শেষে বিদায় নেয়ার সময় পরস্পরকে চুম্বন করেন জেসিকা এবং রস।

কয়েকদিন পর তারা একসঙ্গে রাতের খাবার খান এবং যৌন বাহিত রোগের বিষয়টি পরীক্ষা করান।

চারবারের দেখা হওয়ার সময় তারা যৌন মিলনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন।

”এটা ছিল চমৎকার”। জেসিকা বলছেন। ”আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম যে, আমরা একটি সন্তানের জন্য চেষ্টা করবো। হয়তো তাতে কিছুটা সময়ও লাগবে।”

কিন্তু কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই গর্ভধারণের বিষয়ে পজিটিভ ফলাফল পান জেসিকা। ”আমার বিজ্ঞাপন দেয়ার ছয় সপ্তাহের মধ্যেই আমি গর্ভধারণ করেছি। এতটা আমি আশা করিনি।”

তাদের মধ্যে কোন লিখিত চুক্তি ছিল না, কিন্তু তারা দুজনেই সিদ্ধান্ত নিলেন যে, তারা আর অন্য কারো সঙ্গে মিলিত হবেন না।

যদিও এটাকে পুরোপুরি ভালোবাসা বলে বর্ণনা করতে চান না জেসিকা।

গর্ভধারণের পুরো সময়টা জেসিকাকে নানাভাবে সঙ্গ দিয়েছেন রস। হাসপাতালে নিয়ে গেছেন, আলট্রাসাউন্ড ছবি হাতে নেয়া নিয়ে ঝগড়া করেছেন। একসময় জেসিকা বুঝতে শুরু করেন যে, তিনি রসকে ভালবাসতে শুরু করেছেন। কিন্তু তার আশংকা ছিল, হয়তো রসের সব যত্ন তার সন্তানের জন্যই, হয়তো জেসিকা আসল লক্ষ্য নয়।

একসময় জেসিকা অনুভব করতে শুরু করেন, রস বাড়িতে ফিরলে তার ভালো লাগে, একত্রে রাতের খাবার খেতেও তাদের ভালো লাগে।
Image captionএকসময় জেসিকা অনুভব করতে শুরু করেন, রস বাড়িতে ফিরলে তার ভালো লাগে, একত্রে রাতের খাবার খেতেও তাদের ভালো লাগে।

শিশুটির জন্মের দুই মাস আগে জেসিকার অ্যাপার্টমেন্টে উঠে আসেন রস। তখন দুজন আরো ভালোভাবে দুজনকে বুঝতে শুরু করলেন। দুজন দুজনের নতুন নতুন দিক আবিষ্কার করতে শুরু করলেন।

একসময় জেসিকা অনুভব করতে শুরু করেন, রস বাড়িতে ফিরলে তার ভালো লাগে, একত্রে রাতের খাবার খেতেও তাদের ভালো লাগে।

এখন এই যুগল একবছরের বেশি সময় ধরে একত্রে থাকছেন। আরো একটি সন্তান নেয়ার পরিকল্পনাও শুরু করেছেন তারা।

শুধুমাত্র সন্তানের পিতা খোঁজার জন্য ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন জেসিকা। কিন্তু তিনি একজন জীবনসঙ্গী খুঁজে পেয়েছেন।

অন্য রকম একটি পদ্ধতিতে নিজের পরিবার শুরু করেছিলেন জেসিকা। আর সেজন্য তার এখন ভালোই লাগে।

বিয়ের ৪ বছর পর শাশুড়িকে যৌতুকের টাকা ফেরত দিলেন জামাতা
৪০ রোগীর চিকিৎসা দিয়ে নিজেই মরলেন ডাক্তার
বিশ্বের ক্ষুদ্রতম স্বাধীন সার্বভৌম দেশ, লোকসংখ্যা মাত্র ৩


সর্বশেষ সংবাদ

মেয়ের বয়স কম হওয়ায় বাসর ঘরে যাবার আগে স্বামীকে একি বললেন মেয়ের মা!

সাহসীকতায় দেশের সব সীমা লঙ্ঘন করেছে ‘দ্য মাইন্ড গেম’ (ভিডিও সহ)

চুড়ান্ত বিচ্ছেদের ১ দিন আগে এ কী বললেন অপু বিশ্বাস!

রাতে বাসরঘর, সকালে পরীক্ষার হল!

হাসপাতালের মর্গে ভাইয়ের লাশ রেখে বিয়ের পিঁড়িতে তরুণ!

মাত্র ২টি পাতায় ডায়াবেটিস ধ্বংস !জানুন বিস্তারিত

মাহির অন্ধকার জগৎ

জেনে নিন পিএসএলে মুস্তাফিজের ম্যাচের সময়সূচি

সাভারে প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ করল ৫৫ বছরের গৃহশিক্ষক

বিএনপির অভিনব এক নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

শাকিব খানের অধঃপতন সামনে দেখতে পাচ্ছি

যা খেলে প্রেমে পড়তে বাধ্য হবেন যে কেউ! যা বলছে গবেষণা

দুবাইয়ে বসের মেয়েকে চুমু খেয়ে কারাগারে এক বাংলাদেশি!

ভোলা হবে বাংলাদেশের সিঙ্গাপুর: তোফায়েল

এবার স্কুল শিক্ষিকাকে ধর্ষণের হুমকি সপ্তম শ্রেণির ছাত্রের

শহীদ মিনার ভেঙে পাশে লিখে গেছে ‘মহাপাপ

কেমন স্বামী খুঁজছেন কোটিপতি সৌদি নারীরা ??

২ মিলিয়ন ডলারের ক্ষতির মুখে ক্রিস লিন

মনে অত্যান্ত দুঃখ কষ্টে নিয়ে যা বললেন মির্জা ফখরুল

গর্ভকালীন সময়টা আমি খুব আত্মতৃপ্তি নিয়ে করেছিঃ মৌসুমী হামিদ





error: Content is protected !!
Copy to clipboard