বৃহস্পতিবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং। ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। রাত ৪:৩৭








প্রচ্ছদ » সম্পাদকীয়/কলাম

পুলিশ নিয়োগেই গণ্ডগোল!

দুই বছর আগের ঘটনা। ২০১৬ সাল। কিশোরগঞ্জ শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ। লাখো মানুষ নামাজের প্রস্তুতি নিচ্ছে। আচমকা শব্দ। গুলশান হামলার রেশ না কাটতেই ঈদের সকালে শোলাকিয়ায় পুলিশ সদস্যদের ওপর বোমা হামলা। গোলাগুলিতে চারজন নিহত। এর মধ্যে দুজন কনস্টেবল। সেই গোলাগুলি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভাইরাল হয়। সেখানে মনে হয় যেন রুপালি পর্দার কোনো অ্যাকশন দৃশ্য। পেছনে ছয়জন বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ও হেলমেট পরা পুলিশ সদস্য। সামনে নীল পাঞ্জাবি ও জিন্স প্যান্ট পরা এক পুলিশ কর্মকর্তা চায়নিজ রাইফেল হাতে মুফতি মোহাম্মদ আলী (রহ.) জামে মসজিদ অতিক্রম করছেন। তিনজন পুলিশ সদস্যকে কাভারে রেখে মসজিদের পরের বাসাটির ফটকের সীমানা প্রাচীরকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন। আর সন্ত্রাসীদের উদ্দেশে একের পর এক গুলি ছুড়ছেন। ফটকের ভেতরে কিছুটা ঝুঁকে সন্ত্রাসীদের পাল্টা গুলি থেকে নিজেকে সুরক্ষা করছেন। কয়েকটি গুলি তার সামনে এসে পড়ে। এরপরও ঝুঁকি নিয়ে চালিয়ে যান বন্দুকযুদ্ধ।

জননিরাপত্তার কাজে সেইদিন দুই কনস্টেবল প্রাণ দেন। যিনি জীবনবাজি রেখে রাইফেল চালিয়ে সন্ত্রাসীদের কুপোকাত করেছেন সেই পুলিশ কর্মকর্তার নাম মোর্শেদ জামান। যারা জীবনের প্রয়োজনে প্রাণ দিতে পারেন কিংবা মোর্শেদের মতো সাহসিকতা দেখাতে পারেন, তাদেরই নাম লেখানোর কথা পুলিশের খাতায়। এই হিসাব করলে এই দেশের সাহসী মানুষের কোনো শেষ নেই। কিন্তু সবাই কী আসলেই সাহসী? প্রাণ হারাতে রাজি? উত্তর যদি ‘না’ বোধক হয়, তবে পুলিশে চাকরি নিতে এত লোকের আগ্রহ কেন? তাদের অনেকেই তো আবার নিয়মের বাইরে গিয়ে বাড়তি খয়-খরচা করেও এই বাহিনীতে যেতে রাজি। এর সুযোগ নেয় একটি মহল। তারা কারা? এ প্রশ্নের উত্তর বেশ খানিকটা মিলবে পুলিশ সপ্তাহের শেষদিকে এসে ১১ জানুয়ারি পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায় দেওয়া ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য থেকে। সেদিন তিনি বলেন, ‘পুলিশের কোয়ালিটি বাড়ানোর পথে রাজনীতি অন্তরায়। পুলিশের কোয়ালিটি কীভাবে বাড়বে? প্রতি বছরই পুলিশে ভাগাভাগি হচ্ছে। অমুক জেলায় পাঁচজন এমপি ওখানে পাঁচজন দিতে হবে। তখন উনারাও ভাগ নেন।’ সদ্যই ঠাকুরগাঁওয়ে এক দলীয় সভায় এই নিয়োগ বাণিজ্যকারীদের সতর্ক করে দিয়ে কাদের বলেন, ‘পুলিশ কনস্টেবল কত গরিব মানুষ, এখানে ভাগ বসায়, আমার দুজন, পাঁচজন, আমার সাতজন; আর গরিব লোক জমি বিক্রি করে টাকা দেয়, এসব লোক আওয়ামী লীগের নেতা হতে পারে না।’ আমরা আশায় থাকব যে, সরকারি দলের দ্বিতীয় প্রধানের এই ভাষণ অনুদিত হবে সব ধাপের, সব দলের নেতাদের জীবনে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

তায়েব মিল্লাত হোসেন: সাংবাদিক ও সাহিত্যিক

নতুন বছর হোক আত্মজিজ্ঞাসা আর আত্মসমালোচনার বছর
রেকর্ড গড়লেন শেখ হাসিনা
শেখ হাসিনাকে মনে রাখবে তো এই শিক্ষকেরা?


সর্বশেষ সংবাদ

মেয়ের বয়স কম হওয়ায় বাসর ঘরে যাবার আগে স্বামীকে একি বললেন মেয়ের মা!

সাহসীকতায় দেশের সব সীমা লঙ্ঘন করেছে ‘দ্য মাইন্ড গেম’ (ভিডিও সহ)

চুড়ান্ত বিচ্ছেদের ১ দিন আগে এ কী বললেন অপু বিশ্বাস!

রাতে বাসরঘর, সকালে পরীক্ষার হল!

হাসপাতালের মর্গে ভাইয়ের লাশ রেখে বিয়ের পিঁড়িতে তরুণ!

মাত্র ২টি পাতায় ডায়াবেটিস ধ্বংস !জানুন বিস্তারিত

মাহির অন্ধকার জগৎ

জেনে নিন পিএসএলে মুস্তাফিজের ম্যাচের সময়সূচি

সাভারে প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ করল ৫৫ বছরের গৃহশিক্ষক

বিএনপির অভিনব এক নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

শাকিব খানের অধঃপতন সামনে দেখতে পাচ্ছি

যা খেলে প্রেমে পড়তে বাধ্য হবেন যে কেউ! যা বলছে গবেষণা

দুবাইয়ে বসের মেয়েকে চুমু খেয়ে কারাগারে এক বাংলাদেশি!

ভোলা হবে বাংলাদেশের সিঙ্গাপুর: তোফায়েল

এবার স্কুল শিক্ষিকাকে ধর্ষণের হুমকি সপ্তম শ্রেণির ছাত্রের

শহীদ মিনার ভেঙে পাশে লিখে গেছে ‘মহাপাপ

কেমন স্বামী খুঁজছেন কোটিপতি সৌদি নারীরা ??

২ মিলিয়ন ডলারের ক্ষতির মুখে ক্রিস লিন

মনে অত্যান্ত দুঃখ কষ্টে নিয়ে যা বললেন মির্জা ফখরুল

গর্ভকালীন সময়টা আমি খুব আত্মতৃপ্তি নিয়ে করেছিঃ মৌসুমী হামিদ





error: Content is protected !!
Copy to clipboard