শনিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং। ৩রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। সকাল ১০:০৮








প্রচ্ছদ » ক্রাইম ওয়ার্ল্ড

ওসি স্যারের জন্য চাঁদা তুলতে গিয়ে গণপিটুনি খেলেন আনসার সদস্য

কক্সবাজার সদর থানায় বিশেষ আনসার মাজেদুল ইসলাম বিপ্লব। এমন কোন অপরাধ নাই যে সে করে নাই। তবে অপরাধকর্ম থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় সরকার চাকরি দেয় বিশেষ আনসার হিসেবে। সংযুক্তি দেশের বিভিন্ন থানায়। অপরাধকর্মের রেশ মজ্জায় থাকায় সাহসটা বেশি। তাই যেকোনো অভিযানে আগে পা চালিয়ে সহজে থানার বড় অফিসারের আস্থাভাজন হন কেউ কেউ।

 

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

সদর থানা পুলিশের ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকারের আস্থাভাজন হিসেবে ওসির নাম ব্যবহারে তিনি চাঁদাবাজি করছেন প্রতিনিয়ত।কক্সবাজার শহরের মাদক ব্যবসায়ী, জুয়ার আসর, ছিনতাইকারি, আচার বিক্রেতা, ভাঙ্গারী ব্যবসা ও বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামিসহ অনৈতিক কাজে জড়িত শহরের হোটেল ও কটেজ পল্লী থেকে দৈনিক এবং মাসোয়ারা আদায় করেন তিনি।কিন্তু দুয়েক দিন আগেও টাকা এনে আবার ১৩ জুলাই বড়বাজার পশ্চিম রাখাইন পাড়ায় চাঁদাবাজি করতে গিয়ে গণধোলাই খেয়েছেন বিপ্লব।

 

পরে পুলিশ গিয়ে তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে আনে। ঘটনা জানার পর ১৫ জুলাই রাতেই তাকে সদর থানা থেকে ক্লোজড করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।সংশ্লিষ্ট ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ৭ মার্চ মাজেদুল ইসলাম সদর থানায় বিশেষ আনসার হিসেবে যোগদান করেছেন। কিন্তু যোগদানের পর থেকে কখনও ডে-নাইট কিংবা পেট্রোল কোনো ডিউটিই পালন করতে হয়নি বিপ্লবকে।

 

তবে নিয়মতিভাবে শহরের বড়বাজার রাখাইন পশ্চিম ও পূর্ব পাড়া, টেকপাড়ার হাঙ্গর পাড়া, বৌদ্ধ মন্দির ও গোলদিঘীর রাখাইন পাড়ার মাদক বিক্রেতাদের কাছ থেকে চাঁদা নেয়ার পাশাপাশি শহরের লালদিঘীরপাড় ও কলাতলীর হোটেল-মোটেল জোনের জুয়ার আসর ও অনৈতিককাজে জড়িত বিভিন্ন হোটেল ও কটেজ থেকে মাসোয়ারা আদায় করে আনতেন বিপ্লব।

 

এসব করতে গিয়ে তিনি নিয়মিত মাদক সেবন করেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।সূত্র মতে, চাঁদাবাজির এসব অভিযোগে তাকে মাস তিনেক আগে সদর থানা থেকে কুতুবদিয়া থানায় বদলি করা হয়। তবে সদর থানার একজন পরিদর্শকের তদবিরে সেই বদলি ঠেকান বিপ্লব। আর ওই বদলি ঠেকানোর পর থেকে বিপ্লব আরও বেপোরোয়াভাবে চাদাঁবাজিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।সরকারি একটি গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য মতে, হাঙ্গরপাড়ার মদ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৩০ হাজার, বড়বাজার পূর্ব রাখাইনপাড়ার ৪ জন মাদক কারবারীর কাছ থেকে ৩০ হাজার, পশ্চিম রাখাইনপাড়ার মাদক ব্যবসায় জড়িত ১৩টি পরিবারের কাছ থেকে ৩৮ হাজার টাকা, গোলদিঘী ও বৌদ্ধ মন্দির এলাকার মদ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ৬৫ হাজার টাকা, অনৈতিককাজে জড়িত বিভিন্ন হোটেল ও কটেজ থেকে মাসিক ১৫-২০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে বিপ্লব।

 

এছাড়া লালদিঘীরপাড়ের পশ্চিম পাড়ের চিহ্নিত ৩টি হোটেল থেকে এক লাখ ১০ হাজার টাকা মাসোয়ারা নেন তিনি। এসব টাকা ওসির নামে তোলার পর নিজের সুবিধা ও চাহিদার কথা বলে প্রায়ই সময় টাকার জন্য এসব স্থানে হানা দেন বিপ্লব। তাছাড়া গাড়ির মাঠ ও সমিতি পাড়ার ভাঙ্গারী ব্যবসার দোকান ও নকল আচার বিক্রেতাদের কাছ থেকেও মাসোয়ারা আদায়ে ভুলেন না তিনি।এসব করতে গিয়ে নিত্যদিন ফ্রি মাদক পেয়ে বিপ্লব নিজেই মাদকাসক্ত হয়েছেন। কর্মরত অন্যান্য আনসার ও পুলিশ সদস্যরা তার এ খ্যাতি সম্পর্কে অবগত রয়েছেন।

 

এসব অপকর্ম ব্যবহার করতেই তাকে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ থেকে কক্সবাজার সদর থানার এক পরিদর্শক এখানে (সদর থানায়) এনেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।এদিকে ১৩ জুলাই শুক্রবার রাত ১০টায় শহরের বড়বাজারের পশ্চিম রাখাইন পাড়ায় চাদাঁবাজি করতে গেলে গণধোলাই দিয়ে তাকে বেঁধে রাখেন স্থানীয়রা।

 

পরে সদর থানার এসআই রাজীব পোদ্দার ও শহর পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই আরজু, জলযান পুলিশের কনস্টেবল মানিক, ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আমিনুল ইসলাম মুকুলসহ একদল পুলিশ তাকে উদ্ধার করে আনে। এর আগেও শহরের বিভিন্ন জায়গা থেকে চাঁদা সংগ্রহ করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন এ বিশেষ আনসার সদস্য।এ বিষয়ে শহর পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই আরজু বলেন, সেদিন বড় বাজারে সালাম মার্কেটের পেছনে গণ্ডগোল হয়েছে খবর পেয়ে আমি ফোর্স নিয়ে গিয়েছিলাম। তবে সেখানে কি হয়েছে আমি জানি না।

 

এ বিষয়ে জানতে পারবেন সদর থানার এসআই রাজীব পোদ্দারের কাছে।সদর থানা পুলিশের এসআই রাজীব পোদ্দার বলেন, আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই আরজুকে উপস্থিত পাই। তাই ঘটনাস্থলে থাকলেও আমি বিষয়টি নিয়ে ওভাবে জানার চেষ্টা করিনি। তবে শুনেছি আনসার বিপ্লবের সঙ্গে এলাকাবাসীর ভুল বুঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছিল।কিন্তু এ বিষয়ে ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ও কক্সবাজার ব্যবসায়ী দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আমিনুল ইসলাম মুকুল বলেন, আনসার বিপ্লব প্রায়ই সময় রাখাইনপাড়ায় চাদাঁবাজী করতে যায় বলে দারি করেছে এলাকাবাসী।

 

ঘটনার দু’তিন দিন আগেও এলাকা থেকে সে চাঁদা নিয়ে এসেছে। দুদিন না যেতেই আবারও চাঁদার জন্য গেলে তাকে হেনস্তা করে রাখাইনরা। পরে খবর পেয়ে আমি যাই। এরপর পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।এ ব্যাপারে আনসার সদস্য মাজেদুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, চাঁদা আদায়ের ঘটনা নয়। সামন্য ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিল। পরে ঠিক হয়েছে। তবে কি নিয়ে ঝামেলা হয়েছে সেটি বলতে রাজি হননি তিনি।কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকারের সরকারি মুঠোফোনে বেশ কয়েক বার কল করা হয়। কিন্তু তিনি রিসিভ করেননি।

 

পরে বিষয়টি উল্লেখ করে একটি ক্ষুদেবার্তা পাঠানো হয় তার মোবাইলে। এরপরও তিনি কল কিংবা এসএমএস’র উত্তরও দেননি। ফলে অভিযোগ সম্পর্কে তার কোনো বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।তবে থানা পুলিশের একটি অসমর্থিত সূত্র বলেন, বিপ্লবকে পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে এনেছে।এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরাজুল হক টুটুল প্রথমে বিষয়টি জানা নেই উল্লেখ করে একটু সময় চান। পরে আবার কল করে তিনি বলেন, বিষয়টি খোঁজ নিতে গিয়ে সত্যতা মেলায় অভিযুক্ত বিপ্লবকে সদর থানা থেকে ক্লোজড করা হয়েছে। যার জন্য চাঁদা তুলতে গিয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। প্রমাণ পাওয়া গেলে সেই অফিসারের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।



সর্বশেষ সংবাদ

এইমাএ পাওয়ঃ খাগড়াছড়িতে দুপক্ষের মধ্যে গোলাগুলি,৬ জনকে গুলি করে হত্যা

এবার ঈদে উট কোরবানি দিবেন নায়িকা সিমলা! জানুন দাম

দুইবার শিশু কন্যাকে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ লম্পট বাবা, তৃতীয়বারে খেলো গণধোলাই!

এই ষাঁড় নিয়মিত রুটিন মোতাবেক দামী ব্র্যান্ডের মদ পান করে!

আজ ১৮-৮-২০১৮ তারিখ, দিনের শুরুতেই দেখে নিন টাকার রেট কত ?

যে কারণে প্রেমিককে জবাই করে হত্যা করলো প্রেমিকা ডাঃ পপি

কলেজে পড়ার সময়ে আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিত মোরশেদ, তারপর…

বেড়েছে সৌদি রিয়াল রেট ,দেখে নিন আজকের রেট কত?

টাঙ্গাইলের মেহেদীর ষাঁড়টির ওজন ৩৮ মন,দাম জানলে অবাক হবেন

ভালোবেসে বিয়ে, বাইকে ধাওয়া দিয়ে স্ত্রীকে অ্যাসিড ছুড়লেন স্বামী, অতঃপর !

শরীয়তপুর-চাঁদপুর ফেরিঘাটে, ফেরি সঙ্কটে আটকে থাকা গাড়িতে ১৫ গরুর মৃত্যু

ফখরুলের বক্তব্যের জবাবে যা বললেন ওবায়দুল কাদের

অনলাইনে খাবার অর্ডারে যা মিলল, জানলে গাঁ শিউরে উঠবে!

ভাইরাল হওয়া গোপন ভিডিওর মেয়েটি আমি নই : শাহনাজ সুমি

আমি আপনার পা ধরতেও রাজি আছিঃ ড. কামাল

চ্যাম্পিয়ন হওয়াই লক্ষ্য যমজ দুই বোন আনাই মোগিনি এবং আনুচিং মোগিনির

বগুড়ায় নরপশু বাবার হাত থেকেও ইজ্জত বাঁচাতে পারলো না মেয়ে

পারিবারিক ঝগড়া অতঃপর পুকুরে ডুবে আত্মহত্যা

২০ মিনিটের জন্য ১০টাকায় মিলছে গার্ল ফ্রেন্ড!

আসন্ন কোরবানির ঈদকে ঘিরে কামারদের গভীর রাত পর্যন্ত বিরামহীন ব্যস্ততা





error: Content is protected !!
Copy to clipboard