শনিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং। ৩রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। সকাল ১০:০৯








প্রচ্ছদ » বিভিন্ন সংবাদ

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী তরুণীদের দিয়ে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা, অতঃপর!

বাংলাদেশ থেকে এখন হাজার হাজার নারী যাচ্ছে বিদেশে জীবিকার টানে। তবে সবাই গিয়েই কাজ পায় না। আবার অনেকে দালালের খপ্পরে পরে হারায় সর্বস্ব। তেমনই কিছু হতভাগা বাংলাদেশী তরুণী দিয়ে চলছে দেহ ব্যবসা।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী মেয়েদের দিয়ে চলছে দেহ ব্যাবসা। আর এই দেহ ব্যবসার শিকার হচ্ছেন উঠতি বয়সের কিশোরী মেয়েরা। গার্মেন্টস, রেষ্টুরেন্ট অথবা ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে উঠতি বয়সের কিশোরী মেয়েদের পাচার করছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

এই পাচারকারী চক্র এতটাই শক্তিশালী যে তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পায় না। পাচারকারীরা কিশোরী মেয়েদের মালয়েশিয়া নিয়ে বিভিন্ন ক্লাব অথবা মনোরঞ্জন (মোজরায়) বিক্রি করে। অনুসন্ধানে জানা গেছে বাংলাদেশের উঠতি বয়সের মেয়েদের চাহিদা বেশী।

এমনি এক পাচারের শিকার কিশোরীকে দূতাবাসের সহায়তায় দেশে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (১৮) জুলাই রাত সাড়ে ১০টায় মালিন্দ এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

এদিকে এ ঘটনার পর নড়েচড়ে বসেছে মালেশিয়ান দূতাবাস। এ চক্রকে ধরতে সে দেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মাঠে নেমেছে বলে দূতাবাসের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

কিশোরী মিনার (ছদ্মনাম) গত তিন মাস আগে দালাল জহুরুলের প্ররোচনায় মালয়েশিয়া আসে। মিনা এ প্রতিবেদককে জানায়, কুমিল্লার জহুরুল মালয়েশিয়ায় রেষ্টুরেন্টে কাজ দিবে বলে আড়াই লাখ টাকার বিনিময়ে ঢাকা থেকে অন এরাইভেল ভিসায় ইন্দোনেশিয়া নিয়ে যায় মিনাকে।

ইন্দোনেশিয়া থেকে পানি পথে নিয়ে আসে মালয়েশিয়ার ক্লাং-এ। সেখান থেকে ৩ দিন পর নিয়ে আসে কুয়ালালামপুর শহরে। শহরে এনে রাজবাড়ির নূর ইসলামের কাছে জহুরুল মিনাকে বিক্রি করে দেয়। নূর ইসলাম মিনাকে বুকিতবিনতাং এলাকায় নিয়ে গিয়ে তাকে দিয়ে দেহ ব্যবসা শুরু করে। মিনা প্রতিবাদ করতে গেলে নূর ইসলাম তার উপর শারিরিক নির্যাতন চালায়। প্রতিদিন গড়ে ৫ থেকে ৭ জনের সঙ্গে তাকে বিছানায় যেতে হত।

এ অত্যাচার থেকে বাঁচতে মিনা কৌশলী হয়ে উঠে। একদিন সে নূর ইসলামকে বলল বর্তমানে মালয়েশিয়ার অবস্থা খুব খারাপ। প্রতিদিন ধরপাকড় চলছে। আপাতত একটি ট্রাভেল পাস করে রাখা দরকার। নূর ইসলাম রাজি হয়ে ১৫ জুলাই বাংলাদেশ দূতাবাসে নিয়ে আসে ট্রাভেল পাস নিতে।

ওই দিন দূতাবাস থেকে ট্রাভেল পাস না দিয়ে বলা হয় পরের দিন আসতে। মিনা পরেরদিন যথা সময়ে দূতাবাসে আসার পর নূর ইসলাম তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে সন্দেহ হয় সংশ্লিষ্টদের। মিনা তখন কর্তব্যরত কর্মকর্তাদের সব খুলে বললে পাচারকারীরা আঁচ করতে পেরে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

মিনাকে দূতাবাসের হেফাজতে রেখে ওই দিনই দূতাবাসের সহায়তায় স্থানীয় আম্পাং থানায় এ দুই নারী পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। মিনাকে দ্রুত দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়। স্পেশাল পাস ও টিকেটের ব্যবস্থা করে দেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ন আহবায়ক অহিদুর রহমান অহিদ। দূতাবাসের কল্যাণ সহকারি মো: মুকসেদ আলী ১৮ জুলাই দেশে ফেরত পাঠান। বাংলাদেশ শাহজালাল বিমান বন্দর পৌঁছুলে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক মিনার পরিবারের হাতে তুলে দেয়।

এদিকে দুই নারী পাচারকারীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের পর মালয়েশিয়া পুলিশ তাদের খুঁজছে। মিনা ১৯ বছরে মালয়েশিয়ায় কাজ করতে গিয়ে যেভাবে বিকৃত ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এ রোমহর্ষক বর্ণনায় স্তব্ধ প্রবাসীরা। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে পাচারকারীদের আইনের আওতায় এনে তাদের শাস্তি দাবি করেছেন প্রবাসীরা।



সর্বশেষ সংবাদ

এইমাএ পাওয়ঃ খাগড়াছড়িতে দুপক্ষের মধ্যে গোলাগুলি,৬ জনকে গুলি করে হত্যা

এবার ঈদে উট কোরবানি দিবেন নায়িকা সিমলা! জানুন দাম

দুইবার শিশু কন্যাকে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ লম্পট বাবা, তৃতীয়বারে খেলো গণধোলাই!

এই ষাঁড় নিয়মিত রুটিন মোতাবেক দামী ব্র্যান্ডের মদ পান করে!

আজ ১৮-৮-২০১৮ তারিখ, দিনের শুরুতেই দেখে নিন টাকার রেট কত ?

যে কারণে প্রেমিককে জবাই করে হত্যা করলো প্রেমিকা ডাঃ পপি

কলেজে পড়ার সময়ে আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিত মোরশেদ, তারপর…

বেড়েছে সৌদি রিয়াল রেট ,দেখে নিন আজকের রেট কত?

টাঙ্গাইলের মেহেদীর ষাঁড়টির ওজন ৩৮ মন,দাম জানলে অবাক হবেন

ভালোবেসে বিয়ে, বাইকে ধাওয়া দিয়ে স্ত্রীকে অ্যাসিড ছুড়লেন স্বামী, অতঃপর !

শরীয়তপুর-চাঁদপুর ফেরিঘাটে, ফেরি সঙ্কটে আটকে থাকা গাড়িতে ১৫ গরুর মৃত্যু

ফখরুলের বক্তব্যের জবাবে যা বললেন ওবায়দুল কাদের

অনলাইনে খাবার অর্ডারে যা মিলল, জানলে গাঁ শিউরে উঠবে!

ভাইরাল হওয়া গোপন ভিডিওর মেয়েটি আমি নই : শাহনাজ সুমি

আমি আপনার পা ধরতেও রাজি আছিঃ ড. কামাল

চ্যাম্পিয়ন হওয়াই লক্ষ্য যমজ দুই বোন আনাই মোগিনি এবং আনুচিং মোগিনির

বগুড়ায় নরপশু বাবার হাত থেকেও ইজ্জত বাঁচাতে পারলো না মেয়ে

পারিবারিক ঝগড়া অতঃপর পুকুরে ডুবে আত্মহত্যা

২০ মিনিটের জন্য ১০টাকায় মিলছে গার্ল ফ্রেন্ড!

আসন্ন কোরবানির ঈদকে ঘিরে কামারদের গভীর রাত পর্যন্ত বিরামহীন ব্যস্ততা





error: Content is protected !!
Copy to clipboard