রবিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং। ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ৪:১৪










প্রচ্ছদ » খেলাধুলা

অবশেষে জুভেন্টাসের হয়ে গোলখরা কাটলো ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর।

গত জুলাইয়ে ১১৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসে যোগ দেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।জুভেন্টাসের হয়ে অভিষেকের পর তিন ও গোলের দেখা পাননি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এ নিয়ে সর্বত্র সমালোচনা হচ্ছে। স্বয়ং রোনালদো নিজেই দুশ্চিন্তায় পড়েছেন।তবে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে নিজের ছন্দে ফিরলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

জুভেন্টাসের হয়ে অবশেষে গোলখরা কাটলো ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। সিরি আতে প্রথম তিন ম্যাচে জুভেন্টাসের জয়ের চেয়েও রোনালদোর গোল না পাওয়া নিয়ে বেশ সমালোচনা হয়েছে। তবে আজ সমালোচনার জবাব দিলেন সিআরসেভেন। তার জোড়া গোলে সাসসুয়েলোকে ২-১ গোলে হারিয়েছে জুভেন্টাস।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

দলবদলের মৌসুমে সেরা চমক ছিল রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে রোনালদোর তুরিনে আসা। প্রস্তুতি ম্যাচে গোল করে সমর্থকদের আশাও বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু লিগ শুরু হতেই আর গোলের দেখা নেই! প্রথম দুই ম্যাচে তবু ভালো খেলেছেন, তৃতীয় ম্যাচে ম্যাচের সবচেয়ে বাজে খেলোয়াড়ের ট্যাগ লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল রোনালদোর সঙ্গে। আজ প্রথমার্ধেও প্রায় নিষ্প্রভ ছিলেন রোনালদো।

ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ চললেও বিরতির আগে কেউই নিশ্চিত কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। তবে ৩৭তম মিনিটে নিজেদের ভুলে গোল খেতে বসেছিল অতিথিরা। ডান দিক থেকে জোয়াও কানসেলোর নেওয়া শট ছয় গজ বক্সে ঠেকাতে পা বাড়িয়েছিলেন ডিফেন্ডার পল লিরোলা। তার পায়ে লেগে বল জালে ঢুকতে যাচ্ছিল। দারুণ ক্ষিপ্রতায় রুখে দেন গোলরক্ষক আন্দ্রেয়া কোনসিলি।

দ্বিতীয়ার্দের ৫০তম মিনিটে আর হতাশ হতে হয়নি রোনালদোকে। গোলটা অবশ্য রোনালদোর ক্যারিয়ারের অন্যতম সহজ গোল বলে লেখা থাকবে। বোনুচ্চির শট ফেরাতে গিয়ে হেড করেন সাসসুয়েলোর ফেরারি। কিন্তু তার হেড পোস্টে লেগে চলে আসে রোনালদোর সামনে। গোলরক্ষক একদিকে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন, আশে পাশে কেউ নেই। গোলের মাত্র এক গজ দূর থেকে রোনালদো কোনো ভুল করেননি (১-০)।

৬৫তম মিনিটে সাসসুয়েলোর এক আক্রমণ থেকে বল কেড়ে নিয়ে ডগলাস কস্তা বল দেন খেদিরাকে। সে বল টেনে নিয়ে যান এমরি চান। বক্সের কাছে এসে রোনালদোকে পাস দেন জার্মান মিডফিল্ডার। বল নিয়ে বক্সের বাঁ প্রান্তে চলে যান রোনালদো। আগুয়ান গোলরক্ষককে কোনো সুযোগ না দিয়ে বাঁ পায়ের জোরালো শটে ব্যবধান বাড়িয়ে দিলেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

তবে,জোড়া গোল করেও জোড়া দুঃখ নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন রোনালদো। ৭৮ ও ৮২ মিনিটে প্রায় নিশ্চিত দুটি গোল নষ্ট করেছেন রোনালদো।শেষ দিকে যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে একটি গোল শোধ করেন সেনেগালের ফরোয়ার্ড খুমা বাবাকারে।এদিকে জুভেন্টাসের খেলোয়ার ব্রাজিলিয়ান তারকা ডকলগকস্তা লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেরেছেন।