বুধবার, ১৭ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং। ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। সকাল ৬:৪০








প্রচ্ছদ » রাজনীতি

মামলার রায় নিয়ে যা বললেন বিএনপিপন্থী তারকাগণ!

Loading...

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট, বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি ভয়ালতম দিন ছিল এটি। এই দিনে জন সমাবেশে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটুর জন্য জঙ্গিদের হামলা থেকে প্রানে বাঁচেন। কিন্তু নিহত হয় একাধিক নেতাকর্মীরা।

সেই বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে আজ। রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডে পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন আজ বুধবার এ রায় ঘোষণা করেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...
Loading...

রায়ে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের ফাঁসি ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, বিএনপি নেতা কাজী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন কায়কোবাদসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এই রায়ের বিভিন্ন মহল নানা প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন। কী বলছেন বিএনপিপন্থী তারকারা?

কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক। শিশুশিল্পী থাকা অবস্থায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের হাত ধরে কণ্ঠশিল্পী হিসেবে বেড়ে ওঠা। তিনি এবার নীলফামারী-৪ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে অংশ নিতে চান।

তিনি বলেন,‘ বিএনপি থেকে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। এর থেকে বেশিকিছু বলার নেই। দেখুন, এটা নির্বাচনের বছর। সরকারের প্রতিপক্ষ দল হিসেবে এমন মামলা কিংবা বিচার হতেই পারে। আমরা এর প্রতিবাদ জানিয়েছি। এটাই বলতে পারি। এর বেশিকিছু বলার নেই’।

সুরকার-গীতিকার ও পরিচালক গাজী মাজহারুল আনোয়ার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা। মুখ খুলতে চাইলেন না। তিনি শুধু জানান,‘এটা আইনের ব্যাপার। আমি এর আগামাথা না জেনে কিছু বলতে পারবো না। শুধু এতটুকু বলবো একটি সরকারের আমলে একটি হামলা হয়েছে।

অমনি সেই সরকারের উপরই কি সব দোষ চাপবে? এখন যে সরকার আছে। এখনও তো এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে। তার দায়ভার কি পুরোটাই সরকার নিবে? আমি এত আইন-কানুন বুঝি না। বিএনপির রাজনৈতিক ও আইন বিশ্লেষক অনেকেই আছেন। তারা এ ব্যাপারে কথা বলছেন। আমাদের কথা আসলে সেটাই।’

নায়ক আশরাফ উদ্দিন আহমেদ উজ্জ্বল বিএনপির সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক। তিনি স্পষ্টই বলে দিলেন,‘ এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে হয়েছে। গ্রেনেড হামলা অবশ্যই নৃশংস একটা ঘটনা। কিন্তু এই যে রায় দেয়া হল, সেখানে তারেক জিয়াসহ অন্যান্যদের ফাঁসানো হচ্ছে।

এই রাজনৈতিক রায়ে আমরা অবশ্যই রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করবো। আমরা এ রায় ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি। এটি ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার নোংরা প্রকাশ।‘

কণ্ঠশিল্পী মনির খান বিএনপির সহ-সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক। তিনি জানান,‘‘ যেভাবে `মিথ্যা` মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছিল, সেভাবে আরেকটি `মিথ্যা` মামলায় বিএনপির নেতাদের সাজা দেওয়া হলো। কর্মসূচী দেয়া হয়েছে। আমরা সে মতে আন্দোলন চালিয়ে যাবো।’

এছাড়াও নায়ক হেলাল খান, রিনা খান, কণ্ঠশিল্পী রিজিয়া পারভীন, অভিনেতা বাবুল আহমেদ, সাংস্কৃতিক সংগঠক সালাউদ্দিন ভূইয়া শিশির ও ওবায়দুর রহমান চন্দনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

সুত্রঃ বাংলা ইন্সাইডার