বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং। ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। বিকাল ৩:০০








প্রচ্ছদ » এক্সক্লুসিভ

সর্বশেষ কনসার্টে বসের সাথে এটাই আমার শেষ কথা!

কোটি ভক্তদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি সংগীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। আজ বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যুবরণ করেছেন গুণী এই শিল্পী।সকালে হঠাৎ অচেতন হয়ে পরেন নিজ বাসায় আইয়ুব বাচ্চু। পরে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে আনার পর মৃত ঘেষণা করেন ।

গত মঙ্গলবার রাতে রংপুরের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। সেই গানের অনুষ্ঠানে অংশ নেন আইয়ুব বাচ্চু। অনেকের সাথে কনসার্টে অংশ নিয়েছিলেন ঐশী। সেদিন কথা হয়েছিল আইয়ুব বাচ্চুর সঙ্গে। সেই কথোপকথন ঐশী শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

ঐশী ফেসবুকে লিখেছেন- রংপুর কনসার্টে বসের সামনে বসে বললাম, ‘বস, আপনার গান একটুখানি গাই সাহস করে, আপনি কোনোদিন শুনে ফেললে আমাকে কিন্তু মাইর দিয়েন না। বকা দিয়েন না।’বস সাহস দিয়েছিলেন, ‘গাইবি তুই আমার গান, গাইবি, গাইবি তুই।’

আমি কি জানতাম এটাই বসের সাথে শেষ কথা আমার। সেদিন থেকেই বসকে কেমন জানি লাগছিল, ক্লান্ত, উদাসীন। বসের তোলা শেষ ছবি। আল্লাহ সুবহানাল্লাহ তা’লা আপনাকে বেহেস্ত নসীব করুন, আমিন। সবাই দোয়া করি স্যারের জন্য।

 

আজ সকালে শ্বাস নিতে কষ্ট হয় এই সঙ্গীতশিল্পীর। সকাল ৮টার দিকে বাসা থেকে তাকে নিয়ে স্কয়ার হাসপাতালের দিকে রওয়ানা হন স্বজন ও রাশেদ। অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে আনার পর আনুমানিক সকাল ৯টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আইয়ুব বাচ্চু একাধারে গায়ক, লিডগিটারিস্ট, গীতিকার, সুরকার, প্লেব্যাক শিল্পী। এল আর বি ব্যান্ড দলের লিড গিটারিস্ট এবং ভোকাল বাচ্চু বাংলাদেশের ব্যান্ড জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সম্মানিত ব্যক্তিত্বদের একজন।

দেশের গুণী এই শিল্পী তার শ্রোতা-ভক্তদের কাছে এবি (AB) নামেও পরিচিত। তার ডাক নাম রবিন। মূলত রক ঘরানার কণ্ঠের অধিকারী হলেও আধুনিক গান, ক্লাসিকাল সঙ্গীত এবং লোকগীতি দিয়েও শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছেন।

আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম প্রকাশিত একক অ্যালবাম ‘রক্তগোলাপ’। তার সফলতার শুরু দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘ময়না’র মাধ্যমে। তিনি বেশ কিছু বাংলা ছবিতে প্লে-ব্যাকও করেছেন।আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া অন্যতম জনপ্রিয় গানগুলো হলো- ‘রূপালি গিটার’, ‘রাত জাগা পাখি হয়ে’, ‘মাধবী’, ‘ফেরারি মন’, ‘এখন অনেক রাত’, ‘ঘুমন্ত শহরে’, ‘বার মাস’, ‘হাসতে দেখ’, ‘উড়াল দেব আকাশে’। ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি,’ ‘সেই তুমি কেন অচেনা হলে’, ‘একদিন ঘুম ভাঙ্গা শহরে’, ‘মেয়ে ও মেয়ে’, ‘কবিতা সুখ ওড়াও’, ‘এক আকাশ তারা’ গানগুলো ঘুরেছে মানুষের মুখে মুখে।

উল্লেখ্য,কিংবদন্তি সঙ্গীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর।তিনি এক ছেলে ও এক মেয় রেখে যান ।এদিকে আগামীকাল শুক্রবার ধানমন্ডিতে আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম জানাজা এবং শনিবার জন্মস্থান চট্টগ্রামে চির নিদ্রায় সমাহিত করা হবে বলে জানা যায়।

আরও পড়ুন>>> বিখ্যাত মনীষীদের ১০০ বাণী