রবিবার, ১লা নভেম্বর, ২০২০ ইং। ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ। রাত ১:৩২








প্রচ্ছদ » এটা কোন ক্যাটাগরি না (Super Six)

চীনের তৈরি করোনার ভ্যা’কসিন বাংলাদেশে ট্রায়ালের অনুমোদন

চীনের তৈরি ক’রোনার ভ্যা’কসিন বাংলাদেশে ট্রা’য়ালের অনুমোদন। বিশ্বের প’রা’শ’ক্তি চীনের তৈরি ক’রোনা ভাই’রাসের ভ্যা’কসিন বাংলাদেশে ফেজ থ্রি ট্রা’য়ালের জন্য আইসিডিডিআর,বিকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ চি’কিৎসা গ’বেষণা পরিষদ।
আইসিডিডিআর,বি বাংলাদেশ চি’কিৎসা গবেষণা পরিষদে কাছে অনুমোদনের জন্য আবেদন করার পর বাংলাদেশে ঐ ভ্যা’কসিন ট্রা’য়ালের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

কো’ভিড-১৯ এ ভ্যা’কসিনটি প্রথম দিকে বাংলাদেশের সরকারি ৮টি ক’রোনা হাসপাতালের স্বা’স্থ্যকর্মীদের ওপর প্র’য়োগ করা হতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

বিশ্বকে তা’ক লাগিয়ে সর্বপ্রথম কো’ভিড-১৯ এর ভ্যা’কসিনের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়। গত ২৯ জুন চীনের ইয়াহু নিউজের খবরে বলা হয়, দেশটির সে’নাবাহিনীর গবেষণা শাখা এবং স্যানসিনো বা’য়োলজিকসের (৬১৮৫.এইচকে) তৈরি একটি কো’ভিড-১৯ ভ্যা’কসিন মানব শ’রীরে প্র’য়োগের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

তবে চীনে আপাতত ক’রোনার ঐ ভ্যা’কসিন শুধুমাত্র সে’নাবাহিনীর মধ্যে প্র’য়োগ করা হবে। স্যানসিনো বলেছে, চীনের সেন্ট্রাল মিলিটারি কমিশন গত ২৫ জুন এডি৫-এনকোভ ভ্যা’কসিনটি সে’না সদস্যদের শরী’রের এক বছরের জন্য প্রয়োগের অনুমোদন দিয়েছে। স্যানসিনো বা’য়োলজিকস এবং একাডেমি অফ মি’লিটারির একটি গ’বেষণা ইনস্টিটিউট যৌথভাবে ভ্যা’কসিনটি তৈরি করেছে।

ট্রায়ালের জন্য বাংলাদেশে যে ভ্যা’কসিনটির দেয়া হচ্ছে সেটি চূড়ান্ত পরীক্ষায় সফল হলে সবার জন্য উ’ন্মুক্ত থাকবে। কো’ভিড-১৯ প্র’তিরোধের জন্য চীন সফলভাবে কোনো ভ্যা’কসিন তৈরি করতে পারলে যাবতীয় সহযোগিতা ও সহায়তার ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার দেবে দেশটি। আর এমন কথাই জানিয়েছেন বাংলাদেশের চীনা দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মি’শন হুয়ালং ইয়ান।

জুন মাসের ২১ তারিখে চীনা দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মিশন হুয়ালং ইয়ান জানান, বাংলাদেশ আমাদের গুরুত্বপূর্ণ বন্ধু ও এক্ষেত্রে বাংলাদেশ অবশ্যই অগ্রাধিকার পাবে। এছাড়া, ক’রোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাংলাদেশ ও চীন নি’বিড়ভাবে কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন... বিখ্যাত প্রেমের কবিতা

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...